নতুন নতুন ভালোবাসার গল্প ও কবিতা পেতে আমাদের পাশেই থাকুন।

সাইকো মেয়ের ভালোবাসা পাটঃ১ Saiko Meyer Balobasa golpo

সাইকো মেয়ের ভালোবাসা
পাটঃ১
Saiko Meyer Balobasa golpo
লেখকঃ নীরির আব্বু

কলেজের সব ছেলেদের কাছে একটা ভয়ের নাম হচ্ছে তাসফি। সব ছেলেরাই এই তাসফি কে ভয় করে।  শুধু ছেলেরাই না পুরো কলেজের স্যার,মেডাম,ছেলে,ও কিছু কিছু মেয়েও ভয় করে এই তাসফি নামের
আরো গল্প পড়ুন ভালবাসার_ছোঁয়া Valobasar Chowa
মেয়েটাকে। মেয়েটার পুরো নাম জাহিন তাসফি। পড়ে ঢাকা কলেজ এ। আর তার বাসা টাও ঢাকায়।  এবার অনার্স ২য় বর্ষের ছাএী। তার বেশি ফ্রেন্ড নাই। কলেজে শুধু তার ছোট বেলার ৪ মেয়ে ফ্রেন্ড আছে। মেয়েটা পুরাই সাইকো টাইপের।রাগ বেশি,বদ মেজাজি অল্প তেই রেগে যাওয়া তার স্বভাব।  কখন কি করে তা সে নিজেও যানে না।  সে প্রতিদিন তার বান্ধবিদের সাথে মাঠের এক কেনায় বসে থাকে। বাবার অফুরন্ত টাকা আছে। মেয়েটার বাবার টাকা পয়সার দিক দিয়ে দেখতে গেলে কলেজের সব চাইতে বড়লোক বাবার মেয়ে হয়ে নাম সবার সামনে থাকবে ওই সাইকো মেয়ে তাসফির।

প্রতিদিনের মতো আজকেও সে তার ফ্রেন্ড দের সাথে মাঠের কোনায় গেটের সামনে বাইকে বসে আছে।   সাথে আছে তার ছোট বেলার ফ্রেন্ড,রুমি,রিমি,অনিকা ও অনা।
তাসফি বাইকে বসে আছে আর রুমি,রিমি রা নিচে ঘাসের উপর বসে  গল্প করছে,,,,,,
রিমিঃ আচ্ছা তাসফি  তুই যে এমন একটা সাইকো মেয়ে তোর সাথে কে ছেলে বিয়ে দিবে।
তাসফিঃ আরে কত ছেলে আমাকে প্রপোজ করে তুই তা জানিস না।
রুমিঃ আরে তা তো সবাই জানে।  আর তুই কি জানিস তারা কেন তোকে প্রপোজ করে।
তাসফিঃ কেন আবার আমি দেখতে সুন্দর,স্মাট, বাবার টাকা পয়সার  একমাএ অধিকারী আমি তাই।
রিমিঃ তুই তাহলে কিছুই জানিস না।
তাসফিঃ তাহলে কেন। (রেগে গিয়ে)
রুমিঃ আরে শুন  যারা যারা তোকে প্রপোজ করে তারা তাদের গফ এর জন্য করে বুঝলি।
তাসফিঃ এই ভালো ভাবে বল।
অনিকাঃ আমি বলছি শুন তাহলে
তাসফিঃ হুমমম বল।
অনিকাঃ যে ছেলে গুলো তোকে প্রপোজ করেছে আসলে তাদের গফ আছে। ,, এখন তোর আমার কাছে প্রশ্ন হবে যে তাহলে ওরা তোকে কেন প্রপোজ করে,,এটাই তুই বলবি তাই তো।
তাসফিঃ হুমম এটাই আমার প্রশ্ন, তাহলে কেন তারা আমাকে প্রপোজ করে।
অনিকাঃ তারা তোকে প্রপোজ করে তাদের গফ এর জন্য। তাদের গফ কে তারা যখন  প্রপোজ করে তখন তারা কি বলে জানিস।
আরো গল্প পড়ুন ভালবাসার_ছোঁয়া Valobasar Chowa
তাসফিঃ আমি কি শুনছি নাকি যে জানবো।
অনিকাঃ তারা বলে যে, আমার বফ হওয়ার জন্য কি করতে পারবা। আর ছেলেরা বলে যে, তুমি যা বলবে তাই করবো।
তাসফিঃ এতে করে আমাকে প্রপোজ করার সাথে কি তুলনা।
অনিকাঃ তখন মেয়েরা বলে যে আগে তাসফি আপুকে প্রপোজ করে আস।  যদি প্রপোজ করতে পার তাহলে বুঝবো যে তুমি আমার যোগ্য।
তাসফিঃ কিইইই।
রিমিঃ হুমমম যা শুনছিস তাই।
তাসফিঃ দেখি এবার কে আমাকে প্রপোজ করতে আসে।  দেখবি এবার আমি কি করি।
রুমিঃ চল ক্লাসে যাই।

 ক্লাসস করে সোজা বাসায় যায় তাসফি। সেই চাইলেই  তার প্রায়ভেট কারে করে যেতে পারত কিন্তু সে প্রতিদিন তার( R15 new version) বাই নিয়ে আসা যাওয়া করে ।  যখন সে রাস্তা দিয়ে বাইক চালিয়ে বাসায় যায় তখন রাস্তার সব লোকই তার দিকে তাকিয়ে থাকে।

 বাসায় এসে সে ফ্রেশ হয়ে নামাজ পরে।  এই তাসফির একটা ভালো দিক আছে। সেটা হলো সে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পরে।  আর সে প্রতি দিন কোরআন পাঠ করে।

আজকেও সকালে বাসা থেকে বাইক টা নিয়ে বেরিয়ে পরে কলেজের উদ্দেশ্যে। সেই কলেজ এ গিয়ে দেখে যে তার ফ্রেন্ড গুলো তার জন্য বসে অপেক্ষা করছে। সে যাইতেই,,,,,
অনাঃ কিরে সাইকোনি আজকে এত লেট হলো কেন।
তাসফিঃ আরে বলিস না আজকে সকালে খুব তারাতারি উঠছিলাম।  তারপর নামাজ পরে একটু কোরআন পাঠ করলাম।  তারপর খেয়ে আসতে আসতে লেট হয়ে গেল।
অনিকাঃ আজকে তো কেউ আসছে না তোকে প্রপোজ করতে।(তাসফি কে বলল)
রুমিঃ আরে আসবে আসবে।
হঠাৎ করে একটা ছেলে আসছে তাদের দিকে। ছেলেটাকে এর আগে কখনো দেখি নি তাসফিরা। মনে হয় নতুন। ছেলেটা তাসফির কাছে আসতেই সে তার গালে ঠাস,ঠাসস করে ২ টা চর দিয়ে দেয়। আর ছেলেটা তো আবাক হয়ে প্রশ্ন করে,,,,
ছেলেটাঃআপু আমাকে মারলেন কেন।
তাসফিঃ আমাকে প্রপোজ করতে আসছিস তাই না ।
তারপর ছেলেটা যা বলল তা শুনে তাসফি সহ বাকি সবাই আবাক। কারন ছেলেটা বলল,,,,,,,,,,

চলবে,,,,,,

প্রথম পাট এটাই তাই যদি ভালো লাগে গল্পটা তাহলে পরের পাটটা দিব। যদি ভালো লাগে তাহলে nice/next না লেখে কেমন কাহিনীতে লিখলে ভালো হবে, কি রকম করলে ভালো লাগবে তা কমেন্ট করুবেন।
কারন next পাট তো পাবেন ই।
আরো গল্প পড়ুন ভালবাসার_ছোঁয়া Valobasar Chowa
Share:

No comments:

Post a Comment

Search This Blog

Labels

Blog Archive

Recent Posts

Label