নতুন নতুন ভালোবাসার গল্প ও কবিতা পেতে আমাদের পাশেই থাকুন।

মামাতো বোনকে বিয়ে♥ ৩য় পর্ব Valobasar Golpo Mamato Bonke Biye

♥মামাতো বোনকে বিয়ে♥
৩য় পর্ব
Valobasar Golpo Mamato Bonke Biye
লেখকঃSk_Polok
নিলা যতদিন সুস্থ না হবে ততদিন আমাদের বাসা থেকে কেও নিলাকে দেখতে যাবে না।।
বা নিলা এইবাসায় আসতে পাড়বে না,
মামাঃতুই যা বলছিস আমরা সব শুনবো তারপরেও তুই আমার মেয়েকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে এনে দে বাবা....
আমিঃআচ্ছা মামা তুমি চিন্তা করো না,,আমি আমার সব টা দিয়েই চেষ্টা করে যাবো...
মামাঃআচ্ছা তোর যদি কখনো কোনো সমস্যা হয় তাহলে আমাকে বলবি কিন্তু??
আমিঃআচ্ছা মামা বলবো..
মামাঃঅনেক কথা হয়েছে এবার তো কিছু খেতে হবে নাকি?
মামা আমার খেতে ইচ্ছা করছে না।
মামাঃসে তো হবে না নতুন জামাই বলে কথা
আর নতুন জামাই যদি না খেয়ে থাকে তাহলে সেটা হবে কিভাবে??
মামার কথা শুনে আমি কিছুটা লজ্জা পেলাম।
জামাই বলে আমাকে😁😁😁আমি তার ভাগিনা
আমিঃআচ্ছা মামা চলো খেতে যাই..
মামা আর আমি টেবিলে বসে পড়লাম কিছুক্ষণ পর মামি আর নিলা আসলো...
বুঝি না এতো সুন্দর একটা মেয়ে এই রকম পাগলের মত থাকে কেনো?নেশা করে ঠিক আছে তাই বলে কি নিজেকে পাগলের মত করে রাখতে হবে নাকি?
নিলাকে আমার পাশে বসালো..
যদি আমার বাসা থাকতো তাহলে
আমি উঠে যেতাম কিন্তু এখন যেহেতু মামা বাসায় আছি তাই বেয়াদবি করবো না।হাজার হোক আমি একটা পিচ্চি আর পিচ্চিরা কি বড়দের সাথে বেয়াদবি করতে পারে?
মামি খাবার বেড়ে দিতে লাগলো...
নিলার প্লেটে যেই খাবার দিলো নিলা সেটা ছুড়ে ফেলে দিলো...কিন্তু কেনো এমন করলো??
মামাঃকিরে মা তুই খাবার ফেলে দিলি কেনো??
নিলাঃআমি এই সব খাই?আমি তো মদ খাবো?
নিলার কথা শুনে আমার খুব রাগ হলো..
আমি উটে নিলার গালে একটা থাপ্পড় দিলাম।
নিলা গালে হাত দিয়ে...অই তুই আমাকে মারলি কেনো?
আমিঃবড়দের সাথে কিভাবে কথা বলতে হয় সেটা ভুলে গেছো??
নিলাঃআমি কি তোর কাছ থেকে শিখবো নাকি?আমি যার সাথে যেভাবে ইচ্ছা তার সাথে সেইভাবেই কথা বলবো তুই বাধা দেবারর কেরে??
আমিঃআমি কেও না,,কিন্তু
যাদের সাথে অমন ভাবে কথা বললে তাড়া তো তোমার আব্বু আম্মু...
নিলাঃআর আব্বু আম্মু যারা কিনা নিজের মেয়ের ভালো দেখতে পারে না তারা আমার আব্বু আম্মু হবে কিভাবে??
আমিঃদেখো তোমার কোথায় ভুল হচ্ছে কোনো মা বাবাই চাইবে না তার সন্তান নষ্ট হয়ে যাক।বা কোনো কারনে কষ্ট পাক..
মামাঃআহহ এখন তোরা চুপপ কর.. আর নিলা চুপচাপ খেতে বসো।
নিলাঃনা আমি খাবো না ও আমাকে মাড়লো কেনো??
মামাঃআমি ওকে বকে দিবো এখন খেতে বসো।।
নিলা খেতে বসলো আমার খেতে একদম ইচ্ছে করছে না..কিন্তু উঠেও যেতে পারছি না..
কোনো মতে খাওয়া শেষ করলাম,,তবে সেটা না খাওয়ার মতই..
খাওয়া শেষ করে আমি ছাদে চলে গেলাম।
অনিকার সাথে কথা হয়না...মেয়েটা হয়তো রাগ করে বসে আছে।
ছাদে গিয়ে অনিকাকে ফোন দিলাম।
রিং হবার সাথে সাথেই রিছিভ হলো আমার মনে হচ্ছে মেয়েটা আমার ফোনের জন্যই অপেক্ষা করছিলো..
আমিঃহ্যালো কি করো?
অনিকাঃকান্না করি..নাক টেনে..
আমি;কি ব্যাপার তুমি কান্না করছো কেনো??
অনিকাঃআমার ভাগ্যে আছে তাই আমি কান্না করছি।
আমি;কান্না করে না..
অনিকাঃকরবোই তাতে তোমারর কি?এখন তো আমাকে আর মনেই পড়ে না ভুলে গেছো আমাকে..
আমিঃনা ভুলবো কেনো?আমি কি আমার কিছু বলতে গিয়েও থেমে গেলাম।কিভাবে বলবো আমি যে এখন অন্য কারো স্বামী হ্যা মানছি আমি নিলাকে বউ হিসাবে মানতে পারছি না..কিন্তু সমাজের চোখে তো আমরা স্বামী স্ত্রী..
অনিকাঃকি হলো কিছু বলতে চেয়েও বললে না যে??
আমিঃতুমি আর কেদো না প্লিজ।
অনিকা;আচ্ছা আমি কান্না করবো না,,কিন্তু এখন আমার সাথে অনেক অনেক কথা বলতে হবে।
অনিকা এই রকমি পাগলি একটা মেয়ে অল্পতেই কান্না করে দেয়।আবার একটু তেই অনেক খুশি হয়।
অনিকার সাথে অনেকক্ষণ কথা হলো।।
বাই বলে আমি নিচে আসলাম।
কোথাও আমার ভালো লাগছিলো না...
আমি নিলার রুমে গেলাম।নিলা ঘুমিয়ে ছিলো
এখন দেখতে অনেক ভালো
লাগছে একদম বাচ্চা মেয়েদের মত লাগছে..এখন যদি কাওকে বলা হয় এই মেয়েটা নেশাগ্রস্থ কেও বিশ্বাস করবে না।আমি নিলাকে দেখছি আর ভাবছি কি করে নিলাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা যায়।জানি এই পথ থেকে নিলাকে ফিরিয়ে আনা অসম্ভব কিন্তু চেষ্টা করে দেখলে তো কোনো সমস্যা নেই...
আমি নিলার রুম থেকে বের হয়ে আসলাম।
আমি আবার মামার কাছে গেলাম।
আমিঃমামা আমি আমার অইখানে ফিরে যাবো..
মামাঃকেনো আর কিছুদিন থেকে যা..
আমিঃনা মামা নিলা যত এই বাসায় থাকবে ও তত কষ্ট পাবে..আমার তো আর বেশিদিন ছুটি নেই।
আজ রাত এখানে থেকে কাল সকালে আমাদের বাসায় চলে যাবো.
রাতে অন্য একটা রুমে ছিলাম যদিও মামা আমাকে বারবার বলছিলো নিলার সাথে থাকতে কিন্তু আমি চাইনা নিলার সাথে থাকতে চাই না..
পরদিন সকাল সকাল
আমি রেডি হয়েছি..
মামি নিলাকে নিয়ে এসেছি এখন পুরোপুরি ঠিক আছে সকালে নেশা করে নাই মনে হচ্ছে
নিলাঃআম্মু আমাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছো??
মামিঃকেনো তুই এখন তোর ফুপিদের বাসায় থাকবি...
নিলাঃকেনো আমি সেই বাসায় কেনো থাকবো?আমার তো নিজের বাসা আছে??
মামিঃবিয়ের পর সব মেয়েদের শশুর বাসায় থাকতে হয় যে..
নিলাঃআমি এই বিয়ে মানি না মানবো না।
নিলার কথা শুনে অনেক শান্তি লাগছে..
তাহলে তো সহজে আমি আমার অনিকাকে
আমার করে পাবো..
মামিঃএই সব তুই কি বলছিস নিলা??
নিলাঃএকদম ঠিক বলছি..আমি মামুনকে স্বামী হিসেবে মানতে পাড়বো না বলে দিচ্ছি...
অই আমার এতো খুশি লাগে ক্যা আমার লুঙি ড্যান্স দিতে ইচ্ছা করছে...কিন্তু আমি এখন প্যান্ট পড়ে আছি তাই দিলাম না।
আমিঃমামি ও যা খুশি বলুক আমি কিছু মনে করছি না..
নিলাঃচুপ তুই কোনো কথা বলবি না..সব জেনেও তুই আমাকে কেনো বিয়ে করেছিস আমার বাবার সম্পত্তির জন্য সেটা আমি খুব ভালো করেই জানি....
নিলার কথা শুনে মাথায় আগুন জ্বলে উঠলো।
আমি কিছু বলার আগেই মামা
নিলাকে ঠাস ঠাস করে দুইটা চড় বসিয়ে দিলো..
আরে কাকে কি বলছিস?তুই জানিস যখন তোর কূকৃর্তীর কথা শুনে বর পক্ষ চলে গেলো তখন আমাদের কি অবস্থা হয়েছিলো..আরে তখন যদি মামুন তোকে বিয়ে না করতো তাহলে তোকে কোনো দিন তো বিয়ে দিতেই পাড়তাম না সমাজেও আমার মান সম্মান থাকতো না।
নিলাঃআব্বু তুমি যত যাই বলো আমি জানি ও তোমার সম্পত্তির জন্য আমাকে বিয়ে করেছে..
মামাঃকরলে করেছে,দরকার হলে আমি আজকেই উকিল ডেকে সব মামুনের নামে করে দিবো..ভুলে যাস না মামুন শুধু এই বাড়ির জামাই না আমার বোনের ছেলে..
তাই যদি আমার সম্পত্তি ওকে দিয়েও দেই আমার কোনো সমস্যা হবে না।
আমিঃমামা তোমার কিছু আমার চায় না...
নিলাঃদেখো দেখো এখন ভালো মানুষ সাজা হচ্ছে..
আব্বু তুমি অরে কিচ্ছু দিবা না।তোমার সব কিছু যদি দিতে হয় তাহলে আমাকে দিয়ে দাও..
মামাঃহ্যা তোকে দিয়ে দেই,,আর তুই সেটা দিয়ে নেশা করিস তাই না..
নিলাঃআব্বু আমার সম্পত্তি আমি কি করবো না করবো সেটা আমার ব্যাপার কিন্তু তুমি আমার নামে সম্পত্তি দিনা ওর নামে কিছু দিবা না।।
আমার এইসব কথা একদম ভালো লাগছে না।
আমি;মামা আমি যাচ্ছি যদি নিলাকে পাঠাতে হয় তাহলে ওরে চুপ করাও আর চুপচাপ আমার সাথে যেতে বলো
নাহলে আমি একাই চলে যাবো।
নিলাঃআরে আব্বু আমাকে জোর করে পাঠাতে পাড়লে তো পাঠাবে..আমি একাই যাবো তবে তোর স্ত্রী হয়ে না,,আমি আমার ফুপির বাসায় যাবো..
আমিঃহ্যা তাই চলো।
তারপর গাড়িতে করে আমরা বাসায় চলে এলাম।এখনো নিলা নেশা করে নাই।
বাসায় এসে আব্বু আম্মুর সাথে বেশ ভালো ভাবেই কথা বলছে
দেখেও ভালো লাগছে,,কিন্তু যখন নেশা করে তখন কেমন লাগে??
আমি কারো সাথে কোনো কথা না বলে আমার রুমে চলে গেলাম।
আমি গিয়ে সোজা ওয়াশরুমে ঢুকলাম ফ্রেশ হয়ে নিলাম।তারপর বিছানায় এসে শুয়ে পড়লাম।
কিছুক্ষণ পর নিলা আমার রুমে আসলো..আমি দেখেই না দেখার
ভান ধরে থাকলাম।
নিলা এসে সোজা তার ব্যাগ থেকে মদের বোতল বের করে নিলো...
আমি আর শুয়ে না থেকে উঠে নিলার হাত থেকে মদের বোতল নিয়ে নিলাম।
নিলা;অই তুই আমার হাত থেকে বোতল কেড়ে নিলি কেনো তোর সাহস তো কম নয়।
আমিঃএখন থেকে আমি সব সময় কেড়েই নিবো,যদি তুমি আমার কথা না শুনো..
নিলাঃআমি তোর সব কথা শুনতে রাজি আছি,,কিন্তু আগে আমাকে ওটা দে..
আমিঃতাহলে তোমাকে আমার সাথে আমার বাসায় যেতে হবে...
নিলা;কেনো আমি সেখানে কেনো যাবো?
আমি বলছি তাই যাবে,যদি রাজি থাকো তাহলে দিবো আর না থাকলে তোমাকে এই বাসায় আটকিয়ে রাখবো আর কখনো এইসব খেতে দিবো না।আর যদি তুমি আমার সাথে আমার বাসায় যাও তাহলে এর থেকে ভালো কিছু তোমাকে এনে খাওয়াবো...
নিলা;সত্যি আমাকে এই থেকে ভালো কিছু এনে দিবে??
আমিঃহ্যা অনেক ভালো সেটা..
নিলা;তাহলে চলো আমরা আজকেই চলে যাবো চলো না চলো??
আমিঃআজকে না কালকে যাবো আমরা...আর তুমি যদি আজকে একটাও না খাও তাহলে তোমাকে যাবার পর দিয়ে দিবো..আমিও খাই অনেক ভালো সেটা বাসায় দুটো রাখা আছে...আমি ভাবছিলাম দুজনন একসাথে খাবো..
কিন্তু তুমি যদি আমার কথা রাখো তাহলে দুটোই তোমার(একদম মিছা কথা)
নিলাঃআচ্ছা এক নাই সব গুলা তুমি কোথাওও লুকিয়ে রাখো...
আমি চাইলেও আমাকে দিবে না..
আমি সব গুলো নিয়ে এমন যায়গাতে লুকাইলাম যেগুলা আমার ছেলে মেয়েও খুঁজে পাবে না।
আমার নাতি নাতনি খুঁজে পেতে পারে...
আমি লুকিয়ে এসে দেখি নিলা পাগলের মত আচরণ করছে..
আমি বুঝতে পাড়লাম কেনো এমন করছে..
আমিঃনিলা তোমার কিছু হয়েছে তুমি অমন করছো কেনো?
নিলা;আমি খাবো আমাক এনে দাও.
আচ্ছা দিচ্ছি কিন্তু তাহলে কিন্তু আমার গুলা পাবে না এই বলে দিচ্ছি..
নিলা;না থাক থাক আমার লাগবে না,,আমি এখন ঘুমাবো
এই বলে নিলা বিছানায় শুয়ে পড়লো একবার এই পাশ হয় আরেকবার অন্য পাশ হয় খুব ছটফট করছে মেয়েটা
আমি ভাবছিলাম আমি আমার কাজ বাসায় গিয়ে শুরু করবো কিন্তু এইখানেই যে কাজ শুরু হয়ে যাবে বুঝতে পারি নাই...
কিছুক্ষণ ছটফট করারর পর নিলা ঘুমিয়ে পড়লো আমিও রুম থেকে বেড় হয়ে গেলাম।এটা ভেবে ভালো লাগছে একদিনের জন্য হলেও মেয়েটাকে নেশা থেকে একটু দূরে রাখতে পাড়বো...
দুপুর হয়ে গেছে আমি নিলাকে ডেকে তুললাম।
নিলাঃএই চলো আমরা তোমার বাসায় যাবো...
আমি;আগে গোসল করে খাওয়া দাওয়া হোক তারপর আমরা যাবো।
নিলা লাফ দিয়ে উঠে গোসল করতে চলে গেলো..
কিছুক্ষণ পর নিলা আমাকে ডাকছে
আমি;হ্যা বলো কি বলবে?
নিলাঃআমি তাড়াতাড়ি করতে গিয়ে কিছুই সাথে আনি নাই আমার জামা গুলো একটু দাও তো আমার ব্যাগে রাখা আছে...
আমি ব্যাগ থেকে জামা বেড় করে বললাম আমি কিভাবে দিবো??
নিলাঃতাহলে তুমি রুম থেকে বেড় হও আমি নিয়ে নিবো
আমি রুম থেকে বেড় হয়ে গেলাম।কিছুক্ষণ পর নিলা জামা পড়ে বের হয়ে এসে বললো চলো আমরা খেতে যাবো..
হ্যা চলো
Share:

No comments:

Post a Comment

Search This Blog

Labels

Blog Archive

Recent Posts

Label