নতুন নতুন ভালোবাসার গল্প ও কবিতা পেতে আমাদের পাশেই থাকুন।

জানি দেখা হবে Part : 2 Balobasar Golpp Jani Dakha Hobe

জানি দেখা হবে
Part : 2
Balobasar Golpp Jani Dakha Hobe
Write : Sabbir Ahmed
___________________________
-মামা এক্সিডেন্ট হয় নি (তারপর পুরো ঘটনা বলে)
-তুই এটা কি করলি হ্যা, এইভাবে নিজের জীবন এর অর্ধেক কাউকে দিয়ে দেয়??
-কি করবো বলো?? আমার তো কেউ নেই, আমি পৃথিবীতে থেকে কি করবো?? ভাবছি আর একটা যে আছে সেটাও সুযোগ পেলে কাউকে দিয়ে দিবো...

(কথাটা শুনে মামা কান্না করে দেয়)
-মামা কান্না কাটি থামাও, বাইরে গাড়ি রেখে আসছে, তুমি যাওয়ার সময় নিয়ে যেয়ো।(শুভ)
-আচ্ছা ঠিক আছে (মামা)
-আচ্ছা আমাকে কিছু টাকা ধার দাও তো
-কেনো??
-এমনি দরকার আছে, আর কাজ করে দিয়ে দিবো টেনশন করো না
-আমি কি টেনশন করছি??
-না করতেও পারো, আর কাজ না করতে পারলে কিডনি আর একটা আছে, ওইটা বেচেঁ দিয়ে দিবো, তারপর টাকা শোধ করবো
-এ চুপ কর, তুই বেশি বক বক করিস,
-হুমমম
-আচ্ছা রাতে কাউকে পাঠিয়ে দিবো??
-না মামা একা থাকতে পারবো
-অসুবিধা হবে না তো??
-না মামা টেনশন করো না...
,,
,,
মামা সি এন জি নিয়ে চলে গেলো। দুই দিন শুভ হসপিটাল এ থাকলো।
তারপর থেকে আগের মতো কাজ শুরু। এভাবে কেটে গেলো এক মাস।
,,
,,
একদিন সকালে শুভ কাজে বের হবে, তখন তার মামা ডেকে বলল...
-ভাগনে শোনো(মামা)
-হ্যা মামা বলো (শুভ)
-একটা কথা রাখবে??
-কি কথা??
-একটা বিয়ের দাওয়াত এ যেতে হবে
-কার বিয়ে??
-আমার বউ এর চাচাতো বোন এর মেয়ের বিয়ে..
-তা মামা এত দূরের আত্মীয় তবুও দাওয়াত পেয়েছেন এটা তো আপনার সৌভাগ্যের ব্যাপার, আজ কাল আত্নীয়র কথা কেউ মনে রাখে না, যে যার যার স্বার্থ নিয়ে ঘুরছে
-এগুলো ছাড় তুই রেডি হয়ে নে
-মামা কি যে বলো আমি কেনো যাবো?? দাওয়াত তো দিয়েছে তোমাকে
-আমি কোনো কথা শুনতে চাই না, তোকে যেতেই হবে
-মামা শোনো
-তার তোর কেনো কথা আমি শুনবো না
-আচ্ছা তোমরা যাও আমি পরে যাবো
-তুই চিনবি??
-কেন বেশি দূরে নাকি??
-হ্যা গ্রামে, আর পথ ঘাট ও বেশি ভালো না
-কি বলো!!
-হ্যা রে সেই জন্য তো তোকে...(মামা থেমে গেলো)
-কি হলো থামলে কেনো?? সমস্যা সেই জন্য নিয়ে যাবে?? আরে জানি আমি, আর তুমি আমার মামা, মামার সমস্যায় ভাগনে সমাধান দিবে এটাই স্বাভাবিক তাই না
(মামা শুভকে বুকে জড়িয়ে নিলো) আর বলল
-রেডি হয়ে নে, একটু পর বের হবো..
,,
,,
বিকেল এর দিকে বিয়ে বাড়ি পৌছে যায়। মামার বউ আর সাথে একটা ছোট্ট মেয়ে।
-মামা এ কোথায় নিয়ে এলে (শুভ)
-কেন কি হইছে??(মামা)
-হুহ হাটতে হাটতে তো জীবন শেষ, তার উপর এত্ত গুলো বোঝা,
-সেই জন্য তো তোকে....ইয়ে না মা মা মানে..
-বুঝছি চলো এখন...
,,
,,
বিয়ে বাড়িতে যাওয়ার পর একটু জিড়িয়ে নেয় শুভ। তারপর ঘুরে ফিরে দেখে, একা একাই থাকে সবসময়। এখানে কাউকে চেনে না, নতুন জায়গা একটু খারাপ ই লাগছে, বিকেল এর দিকে গায়ে হলুদ এর অনুষ্ঠান হয়, শুভ সেখানে যায় না। দুর থেকে তাকিয়ে দেখে আর কি যেন ভাবে...
,,
,,
শুভর সাথে বিয়ে বাড়ির কারও সাথেই তেমন পরিচয় হয় না। মামাকে সে বলে দিয়েছে দরকার হলে ফোন করে নিবে..।
তাই শুভও ভেতরে যায় না, বাড়ির বাইরেই বসে থাকে...।
রাত তখন অনেক হইছে শুভর অনেক ঘুম পাচ্ছে...তাই তার মামার কাছে গেলো....
-মামা (শুভ)
-কি হইছে কোনো সমস্যা?? (মামা)
-খুব ঘুম পাচ্ছে, কোথায় ঘুমাবো..
-এই কাজ সেরেছে
-কেন কি হইছে???
-এখানে তো তেমন থাকার জায়গা নেই আমার কোনো রকম একটা জায়গা জুটেছে...
-তাহলে আমি??
-এক কাজ কর তোর তো বাইরে থাকার অভ্যাস আছে, একটু বাইরে থাকবি?? রাগ করিস না
,,
,,
শুভর চোখে পানি চলে এলো
-আচ্ছা ঠিক আছে
শুভ সেখান থেকে আগের জায়গায় গিয়ে আবার বসলো। একটু আগেই তার চোখে ঘুম ছিলো, কিন্তু এখন ঘুম নেই, তার মায়ের কথা খুব মনে পড়ছে, বার বার চোখের পানি মোছে।
,,
,,
হঠাৎ ই বৃষ্টি শুরু হয়।
-ধ্যাত এখন কই যাবো!!! বৃষ্টি থেকে তো বাঁচতে হবে। (শুভ কচুর পাতা দেখতে পায়, সেগুলো দিয়ে সে মাথা টা ঠেকে নেয়।)
,,
,,
বৃষ্টি হচ্ছে তো হচ্ছেই থামা থামির কোনো নাম নেই....হঠাৎ
-কে ওখানে??? (শুভর দিকে লাইটা মেরে কেউ বলল, একটা মেয়েকি কন্ঠে)
-আমিইই (শুভ)
-আমি টা কে??(মেয়েটি এগিয়ে আসে)
,,
,,
মেয়েটি কাছে এসে বলল
-এখানি কি চাআআআ......আপনাকে চেনা চেনা লাগছে (মেয়েটি)
-হ্যা আমি আপনাকে চিনতে পেরেছি, আপনি ইরা, (শুভ)
-হ্যা কিন্তু আমি আপনাকে চিনতে পারছি না
-দাড়ান মনে করিয়ে দেই, এই পোশাক এ জব হবে না
-হা হা হা হা মনে পড়ছে, তা আপনি এখানে কেনো??
-আমারও একই প্রশ্ন আপনি এখানে কেনো???
-এটা আমার গ্রামের বাড়ি, আর কাল আমার বিয়ে
-ওহহহ আপনার বিয়ে!!
-হুমমম(ইরা মন খারাপ করে বলে)
,,
,,
-ভেতরে আসেন, তারপর কথা বলছি (ইরা)
-না ভেতরে যাওয়া যাবে না (শুভ)
-আপনাদের বাড়ির কেউ তো আমাকে চেনে না
-তাহলে এখানে আসছেন কার সাথে,??
-আমার একটা....
-ওয়েট, পরে বলেন আগে ভেতরে চলুন
,,
,,
ইরার সাথে শুভ ভেতরে চলে গেলো। ইরা শুভকে তার রুমে নিয়ে গেলো। একটা তোয়ালে দিয়ে বলল
-চুল গুলো মুছে নিন (ইরা)
-হুমমম(শুভ)
-জানেন আমি তো আপনাকে দেখে অনেক ভয় পাইছি
-কেনো??
-আমি জানালা খুলে বাইরে বৃষ্টি দেখছিলাম, আর তখনই আপনাকে দেখি, মনে করেছিলাম ভূত, পরে দেখি না আপনার পা মাটিতে আছে, তারপর মনে হলো ভূত না
,,
,,
শুভ মুচকি হেসে বলল
-কেন ভূতের পা কি উপরে থাকে??(শুভ)
-হ্যা এক হাত উপরে থাকে
-ওহহ আচ্ছা আপমার শরী...(কথা টা বলে শুভ থেমে যায়, কারন সে তার শরীর কেমন এখন সেটা জিজ্ঞাস করতে চাইছিলো, ভাগ্য ভালো মুখ ফসকে নি)
-কি বললেন শুনতে পাই নি
-না কিছু না
-তো এখন বলেন এখানে কিভাবে আসলেন
-আমি একটা সি এন জি চালাই তো সেই মালিক কে মামা বলে ডাকি আর সেই মামা আপনার মা এর চাচাতো বোন এর জামাই
-ওহহ হ্যা চিনতে পারছি
-তো আসছেন ভালে হইছে। এই শোনেন শোনেন আপনি সি এন জি চালান মানে??
-মানে সি এন জি চালাই কোনো জব কপালে জোটে নি
-ওহহ তা আপনার মা কেমন আছে
-হুমম উপরে বেশ ভালই আছে
-উপরে আছে মানে??
-মানে উনি নেই,
-কিহহ
-হুমমম মামি বাসা থেকে বের করে দিছে, এখন আপনার মামার গ্যারেজ এ থাকি, আর কাজ করি
-.....(ইরা কিছু বলে না)
,,
,,
দুজনই কিছুক্ষণ চুপচাপ,,,,
-হ্যা আপনি যেনো কি কাজ করতে বললেন (শুভ)
-আমাকে নিয়ে পালাতে হবে (ইরা)
-এটা কোনো ব্যাপার... কিহহ পালাতে হবে মানে??
-মানে এ বিয়ে টা আমি করতে পারবো না,আমার ছেলে পছন্দ হয় নি
-আমি এ কাজ করতে পারবো না
-একটা সেলফি তো তোলা যাবো আপনার সাথে
-হ্যা সেটা তোলা যাবে
-ওকে একটু এদিকে আসেন
-হুমম
,,
,,
দুজনে মিলে একটা সেলফি নিলো
-চান্দু এবার আমার কথা না শুনলে আমি সবাইকে মিথ্যা বলব যে আমি তুমি আমাকে, আর আমি তোমাকে ভালবাসি
-আরে না কি বলেন এসব
-হুমম যা বলার একবারেই বললাম, এখন দেখেন কি করবেন
-এগুলো কিন্তু ঠিক না
-সব ঠিক আছে,
-আমি এখনই এখান থেকে চলে যাবো
-এক পা বাড়ালেই চিৎকার দিবো, চুপ চাপ দাড়া
-আমাকে ছেড়ে দেন
-আমাকে নিয়ে পালা, তাহলে ছেড়ে দিবো
-আমি কেনো?? অন্য ছেলেকে বলেন
-নাহহ তুই অনেক ভালো, তোকে ভাল লাগছে তাই তোর সাথেই পালাবো
,,
,,
হঠাৎ একটা বাজ পড়লো...
ইরা চিৎকার দিয়ে শুভকে জড়িয়ে ধরলো...
ইরা কিছুক্ষণ পর বুঝতে পারলো সে শুভকে জড়িয়ে ধরে আছে..ঝটপট ছেড়ে দিলো....এদিকে শুভ ভয়ে কাঁপছে
-এই যে কাঁপছেন কেনো??(ইরা)
-আপনি এ এ এ ভাবে জড়িয়ে ধরলেন কেনো??(শুভ)
-বা রে আমি মেঘের ডাকে অনেক ভয় পাই তাই জড়িয়ে ধরেছি..
-আ আ আমাকে কেনো??
-বাব্বাহহ এই একটু জড়িয়ে ধরেছি তাই এই অবস্থা!! আর তো বাকি আছে
-শো শো শোনেন
-হুমম বলেন
-আপনি অন্য কাউকে নিয়ে যান
-চোপপপপপপ কুত্তা....
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
।।
চলবে
#SSSS
Share:

No comments:

Post a Comment

Search This Blog

Labels

Blog Archive

Recent Posts

Label