বাংলা মজার জোকস, বাংলা কৌতুক, হাসির কৌতুক, bangla jokes, bangali jokes, mojar jokes, bangla funny koutuk, hasir koutuk, bangla koutuk, bangla hasir koutuk, doctor jokes, Bd Jokes, খারাপ জোকস, ছোট ছোট হাসির জোকস,

কবিতা 2020


  • শ্রদ্ধা ভালোবাসা থেকে লেখা কবিতা,


কবিতা 2020

    বঙ্গকন্যা শেখ হাসিনা

জন্মেছো তুমি বঙ্গকন্যা
    তাইতো পেয়েছি সোনার বাংলা।

তোমার হাতের পরশে
        লাল সবুজের বাংলাদেশে
              সোনালী স্বপ্ন খেলা করে।

বাংলার মা তুমি
অামরা গর্বিত বাঙ্গালি জাতি।

   অাজকে তোমার সন্তান
      সারাবিশ্বে মাথা উঁচু করে
           বাড়িয়ে দিয়েছে অামাদের মান।

গর্বিত তুমি মমতাময়ী মা
     তোমার হয় না কোন তুলনা।

দু:খ কষ্টো যন্ত্রনা
        বুঝতে তুমি কখনো দাও না।

সারা বাংলার জনগন
            তোমাকে করেছে অাপন
পৃথীবিতে এরাই তোমার অমূল্য রতন।

       বাংলা মায়ের সন্তানের মুখে
হাসি ফুটাতে  ছুটে চলেছো পথে প্রান্তরে।

   জাতির জনকের যোগ্য সন্তান
           সততায় বিশ্বে অাজ সম্নানিত স্হান।

পিতার স্বপ্ন করেছো পুরন
  তুমি অামাদের  মামতাময়ী মা এখন।

    সত্য ন্যায়ে সঠিক পথে
অাঁধার কেটে অালো পথে
       বাংলাদেশ যাবেই যাবে এগিয়ে।

    সততা মমতা উদারতা
দেখাচ্ছো তোমার অাছে যা।

      অবাক চোখে তাকিয়ে বিশ্ব
দেখছে তোমার উন্নয়ের দৃশ্য।

     স্বাধীন করলো তোমার পিতা
বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের  প্রতিষ্ঠাতা।

           বাঙ্গালি জাতির স্বপ দ্রষ্টা
জীবন দিয়ে বুঝিয়ে দিলো সে তা।
      জাতির জনক ইতিহাসের মহান নেতা।

বাবা মা পরিবারের অাপন জন
   সব হারিয়ে বাংলা মা কে করলে অাপন।

      দেখালে স্বপ্ন করলে পূরন
বাঙ্গালি জাতির ভাগ্যের উন্নয়ন।

    এই হলো বাংলার মা
বঙ্গকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

   ভূলত্রুটি ক্ষমা মার্জনিয়

প্রিয় নেত্রি মমতাময়ী মা প্রধানমন্ত্রী  শেখ হাসিনা আপনাকে কবিতায় তুমি কথাটি লেখার জন্য,ক্ষমা চাচ্ছি।

    আমাকে ক্ষমা করবেন।
Share:

ভালোলাগা ও ভালোবাসার গল্প

তোমার যেদিন দেখেছিলাম সেদিন থেকেই আমি আমার মনের মনিকোঠায় তোমার স্থান দিয়েছি তুমি তাহা জান না । আমার হৃদয় চিরে বা খুলে যদি দেখাইতে পারতাম তোমার কতো ভালোবাসি তাহলে তুমি কোন সংকোচ না করেই আমাকে অবলিলায় বলেদিতে আমি তোমাকে ভালোবসি , কিন্তু আমি তো তোমাকে মুখ ফুটে বলতে পরিনা যে তোমাকে কতোটা ভালোবাসি । বাসা থেকে অনেক কথাই মনে করে যাই যে তোমাকে বলবো কিন্তু তোমার সামনে গেলেই সব ভুলে যাই । এমন কেন হয় জানিনা কিন্তু আমরি মনে হয় যে তোমার ঔ কাজল কালো আঁখি আর মধুর কন্ঠ শুনে মনেহয় আমি সব ভুলে যাই । তাহলে কি তুমি ভাবো যে আমি তোমাকে ভালোবাসি না আমি তোমাকে তো কতোভাবেই বোঝাতে চেষ্টা করি কিন্তু তুমি কেন বুঝতে চেষ্টা করো না নাকি বুঝেও বুঝার চেষ্টা করো না যানি না ।


সত্তি করে বলে  দিচ্ছি যে তোমাকে না পেলে আমি এই পৃথিবী ছেড়েই চলে যাবো । হয় তো এতো বড় একটা কাজ করতে পারবো কিন্তু তোমাকে ভালোবাসি এই কথাটা আমি কখুনো বলতে পারবোনা । যানি না কেন তবু আমার বুকে তোমাকে নি যে এতো ভালোবাসা কেন আমি এই পৃথিবীতে যতো মেয়ে দেখি কারো দেখে আমার মন ভরে না শুধু তোমাকে এক নজল দেখলেই আমার মন ভরে যায় ।

লেখক : গোলাম মস্তফা 
Share:

Valobasar Olpo Kotha

Valobasar Olpo Kotha

ভালোবাসার সংজ্ঞাঃ--

মা ফোন করে কান্নাজড়িত কন্ঠে যখন বলে তুই নাই বাসায় আমার খেতে ইচ্ছে করছে না। তুই খেয়েছিস বাবা? তখন ভাবি এটাই  Valobasa....।

মাস শেষে বার হাজার টাকা বেতন পেয়ে ছয় হাজার টাকা পাঠানোর পরে বাবা যখন বলে, আমাদের আর খরচ কি? তোর টাকা লাগলে বলিস, অথচ আমি জানি আমি ছাড়াও ফ্যামিলিতে আর কজন সদস্য আছে। তখন ভাবি বাবার এই মিথ্যা কথাটাই হয়তো Valobasa....

Room থেকে আসার সময় দাদু যখন বলে, আজকে না গেলে হয়না? তার টলটলে চোখ দেখে মনে হয় এই মায়াটাকেই হয়তো Valobasa বলে....

বোনের বাসায় একটু দেরি করে গেলেই যখন বলে, কেন আসছিস? আমার কোন ভাই নেই আবার পরক্ষনেই জড়িয়ে ধরে ফুফিয়ে কাঁদে। তখন মনে হয় এই হচ্ছে শুদ্ধতম Valobasa...

আগের দিন খেলার মাঠে খেলা নিয়ে দুই বন্ধুর মারামারি কিন্তু পরের দিন ঠিক ই দুজন এক সাথে এটাই হল Valobasa...

শুধু Darling  এর ললাটে চুম্বন দেয়াকে Valobasa বলে না। Valobasa ছড়িয়ে আছে জীবনের পরতে পরতে। শুধু তাকে চিনে নিতে হয়, বুঝে নিতে হয়....!

লেখকঃ Md Shohan Islam
Share:

বউয়ের সাইজ ভুলে গেছি

বউয়ের সাইজ ভুলে গেছি


এক লোক স্ত্রীর জন্য জুতা কিনতে গেছে। দোকানে যেতে যেতে Size নম্বর ভুলে গেল-
দোকানদার: কত নম্বর জুতা লাগবে?
ক্রেতা: ৩৪ নম্বর।
দোকানদার: কী কিনতে আইছেন, তা আগে ভালোভাবে মনে করেন।

বউয়ের সাইজ ভুলে গেছি তো

বউয়ের সাইজ ভুলে গেছি


ভালোবাসার জোকস

একটি ছোট ছেলে একটি Knife  নিয়ে তার হাতে গার্লফ্রেন্ডের নাম লিখল। কয়েক মিনিট পর সে জোরে কাঁদতে লাগল।
- কেন? ব্যথা করছে?
- না!
- তাহলে?
- বানান ভুল হইছে!

Boltu  New  jokes

শিক্ষক: Boltu, সুন্দরবন ভ্রমনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে তোর বন্ধুর নিকট একটা চিঠি লিখ তো!
Boltu লিখলোঃ

.

.

.

প্রিয় ডিজে কুদ্দুস,
দোস্তো মেসেঞ্জারে আয়, কথা আসে।
ইতি
লাইকার বয় Boltu
শিক্ষক বেহুশ...
#wasim

মিষ্টির জোকস

সকালে পত্রিকার বিজ্ঞাপন বিভাগে মিষ্টির দোকানদার Boltu বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেনঃ একজন সহকারী
প্রয়োজন।
যোগ্যতাঃ প্রার্থীর অবশ্যই ডায়াবেটিস থাকতে হবে।

#wasim

হাসির জোকস

যদি আপনার পাদ ও হাচি একসাথে আসে তখন বুঝবেন আপনার শরীর Screenshot  নিচ্ছে😂😂😂 

বানীতে বল্টু
Share:

2019 সালের সুন্দরী মেয়েদের আইডি ও আইডির ফোন নামবার নিয়ে নিন

 2019 সালের সুন্দরী মেয়েদের আইডি ও আইডির ফোন নামবার নিয়ে নিন

Share:

New Sweet love texts 2020

New Sweet love texts 2020


Romantic love messages for him & her, cute texts messages

New Sweet love texts 2020
New Sweet love texts 2020

I miss your smile, your gentle touch, your loving care. I just can’t wait to be with you again!

Whenever i receive a text from you even if it just a word i cherish it with great love, i just want you to know that i love you with all my heart.

Your love is like an echo. You have shown me that love can travel the farthest distance. Like sound, nothing can separate me from you. I love you.

I tried to stop thinking about you, but it is just not earthly possible. I love you and every inch of your perfect body.

I know that sometimes life gets tough, but you are not alone. You can always count on me, because making you happy is my life mission and i won’t fail you, my love.

My love for you has no limit, my joy you are my eternal. You make me feel so fulfill whenever i think of you my everlasting flame. I love you so much.

Our hands fit so tightly together, as if they were made for each other.

I just wanted to let you know i'm blessed with the most beautiful damsel in the world. She's reading this text now and i'm sure she's blushing.

I hate it when you leave, it feels like an eternity even when you are just in the other room.

You were in my dreams and i wanted to remain there, then i remembered holding you in real life is much better. Good morning darling, see you soon.

If i could go a thousand miles just that make you mine i wont even think for a blink of an eye for my love for you knows no boundary. I love you my princess.

I love that you’re the first thing i see when i wake up and the last thing i see when i go to sleep.

If i ever have to spend a day without you, let it be the day i join the stars. For each moment i am still breathing, i want to do each day by your side.

I know it’s only been a few hours since we’ve seen each other, but i can’t stop thinking about you.

I now understand why it never worked out with anyone else. I was supposed to find and end up with you.

You're for keeps darling. I want to be the man that puts smiles on that pretty face of yours. Please let me love you now and forever.
Share:

Take a chance On love part 2::::enjoy

Take a chance On love part 2::::enjoy


The next day, around midday, I was bored in my room, alone, as usual, I heard laughter from the neighbour’s house, along with my brother and Themba’s voices. They were having a great time, making jokes, making jokes and telling stories like old friends with the girls. Since they got rejected by the girls, they decided to befriend them because they were persistent. I stood up from the chair I was sitting in and decided to visit the girls as well. I would no longer be a chicken. I then changed my clothes without bathing, wore white and went next door.
Take a chance On love part 2::::enjoy
Take a chance On love part 2::::enjoy

I was nervous as I saw Maphindi and she saw me, but I decided to act brave and be a gentleman. As they stared at me, I tripped on the steps and fell down, I was so embarrassed and wished that I would disappear right there and then.

I stumbled and picked myself up, I was hurt, but I acted as natural as I could, I felt more embarrassed when they felt pity for me and said words like,”Eish, sorry are you okay? Come let me dust you off.”


To be honest, I had a thing for Maphindi and the fact that she was at university and I was in high school only made me desire her all the more. She was older, but I never revealed my age to the girls I dated, age only spoiled things.

I entered the room after my great embarrassment, sat on their bed and watched them joking around. I didn’t say a word. I was busy thinking of a way to approach Maphindi. I was also thinking about the old phone I had that would spoil things for me, she would think I was broke. Then I convinced myself that she should love me for me and not my material possessions. All these thoughts spun around in my head.

Maphindi and her sister began to notice that I was not enjoying myself while my brother was busy entertaining them. He never noticed that his jokes were dull and how they merely pretended to laugh, their attention firmly on me now. Surprisingly, as if Maphindi knew I wanted her, she asked me if I was okay. “I’m alright, don’t worry,” I said sheepishly.

She called me ‘Lihle’ and I began wondering how she even knew my name. Even if my brothers told her my name, she must have asked, they would not simply tell her my name out of nowhere. I now had hope.

I had a Mint F1CR phone which was broken. I took that phone and wrote in the message category to Maphindi, I told her that she was beautiful and I secretively tapped Maphindi on her back and showed her the message. I was so scared of how she would respond, the problem was that she was older and taller than me and at varsity, and girls are sensitive about age. I did, however, have hope, as she secretly followed the instructions of the message of keeping the message a secret.

She then typed a response,”Nchuuu, thank you.” Those three words just killed my mood, I was suddenly feeling down again, not knowing how to respond back. I was trying to create our private conversation in the middle of the entertainment in the room since I was trying my luck anyway, she made me feel more like a baby. “How can someone respond like that?” I thought. I took her response to heart.

Then I reminded myself of my good reputation. The boys must have talked about me: how I like school, reading and take good care of myself. In my area, I was respected for being clean and neat. My courage was regained through these thoughts and I tried again.

I then wrote to Maphindi again, “Can I accompany you guys when you visit your cousin in the evening?” She then took my phone and wrote back.”


“Yes, you can.”

I was relieved and didn’t worry much. I seemed to come alive during evening times and could talk to girls for hours and hours at night. During the day, people would always tell me not to date at such a young age, but it was the holidays and I was feeling naughty. So evening came and I accompanied them, my brothers were going to accompany them too, but I did not the need my brothers’ approval to do anything, I only needed Maphindi, the girl I craved and loved.
Share:

Take a chance On love part 1

Take a chance On love  part 1


It was the holidays again, but I was still in my room reading novels and doing whatever I regarded as my hobby. Every day to me was the same, even the word ‘holidays’ made no difference to me because I just loved reading and locking myself in my room and writing my stories.
Take a chance On love  part 1

Take a chance On love  part 1


I bored some people, but then no one would stop me from doing what I loved, my brothers began to tell me that I would go mad soon because I never gave myself and the books a break, I just kept on reading. What they said cared me a bit though. What I was doing irritated them because it was the holidays and they didn’t want to be around any papers or books, they wanted to avoid any piece of writings.


So, they spend most of their time outdoors looking for girls and left me alone in the room, which I did not mind because there was peace in the room. My brothers loved girls, they tried their best to influence me with the same behaviour, but I wasn’t interested in anything they offered, because of our different personalities, we never agreed on things, even the choices we made differed.

On the next day, which was Sunday, we got new visitors in the neighbourhood. They were two beautiful girls, both tall and slender. My brothers, as usual, never hesitated to take the opportunity of asking them out on their first arrival. They did this because they were friends with the aunty who brought them, and with whom those girls visited.

My brother P.J and his friend were now regularly visiting them. I wasn’t noticed and I hadn’t noticed them either because I usually stayed indoors. I only saw them by a glimpse. The neighbours’ door was facing my door, so I was now shy of coming out because they would see me. Since we haven’t had visitors in our neighbourhood in a long time (especially fresh young girls) I was interested in getting to know everything about the two visitors that my brother and his friend, Themba, embraced so much. When I glimpsed them, I saw beauty, but quickly went inside the house and closed the door.

From the disappointment on my brother’s face, I could see that he had run out of luck with the girls. He told me when he’d asked the dark, tall girl out on a date, she told him to back off.

“Lihle, I would’ve gotten Maphindi if it were not for that aunt of hers who told her that I like girls. If not for her, Maphindi would have been one of my girlfriend’s by now.”

I knew something like that would happen. My brother has a reputation for being a womaniser in our neighbourhood.

While my brother got nowhere with Maphindi, my brother’s friend, Thembani, was also trying his luck with the other girl, the yellow bone, but he too got a big fat ‘no’.

As we were getting ready for bed, I asked my brother what language the girls spoke, because they seemed to have an attitude, not only from what my brother told me but from their facial expressions too.

“Did you talk to Maphindi?” My brother asked.

“No I’m just saying I saw the way they look, I haven’t said a word to them.”

“You’re a coward, Lihle.” my brother added.
Share:

GET LOVE RIGHT FIRST

GET LOVE RIGHT FIRST


DON’T ALLOW MARRIAGE TO BE LIKE A PEDESTRIAN CROSS WALK?
I know, Love Story must have really lost his mind, right?
New Love Story 2019 photos, GET LOVE RIGHT FIRST
Love Story 2019 
I know of a couple who were living together for more than 10 years, so they decided to make it official and get married and they got divorced in less than a year! So what could have changed? That must be one powerful piece of paper, right? No, but I’ll tell you what changed, perception!!! When we love someone so much that we are so excited and can’t wait to make them happy and then it turns into, this is now “your job”, the fairytale life this couple always dreamed about just went up in smoke! A piece of paper doesn’t do this, only people do. If there is one thing we ALL know for sure, it is that no one HAS to do anything. Yes, there will always be consequences. I believe marriage is so beautiful when two people really love each other and truly want to love each other forever. My only caution is, GET LOVE RIGHT FIRST!!!

What does any of this have to do with a pedestrian cross walk? I remember many years ago when it wasn’t “The Law” to stop your car and allow someone to cross first and back then when we stopped for someone, or a family, they almost always gave us a thank you wave to show their appreciation for allowing them to go first, but today I find that rarely happens, because, “it’s the law, you have to stop for me, right?”
Ok, so here is Love Story’s proposal (yes, pun intended) for new law, those who don’t thank you for stopping, are required to do 5 years of marriage counseling, even if they’re not married! I would bet that those who thank you for stopping today have the best relationships!!!

~~My Best Love Story 2019~~

Share:

New English Love Story 2019

New English Love Story 2019  

I received something unexpected and earned myself some time to throw my heart and soul into something that can and will liberate me once I get there, so I decided to have a glass of wine at a place where I haven’t been in almost a year, eight days less than a year to be exact. Honestly, I have not been to too many places where anyone knows me in the past year, except the town where my girlfriend lives in California. I went to a restaurant, by myself, where I am friends with the owners. I learned that my friends (husband and wife), moved into a new home more than four months ago and I didn’t know about it. Honestly, I had not been to too many places where anyone even knows me in about a year.
New English Love Story 2019

New English Love Story 2019  


As my friend serves me a glass of Pinot Noir and we figure out it has been exactly eight days less than one year since I last saw him, he tells me that he and his wife moved to a new place four months ago and that his wife just started a customizing floral
arrangement type of business. I say to him, “Oh my God, this is so perfect, I have friends of mine that just moved into a new place and I wanted to give them something for their new home, but I didn’t know what to do!” He said, “call my wife and she would be happy to help you!” So I told her what I wanted to do and why. She was very excited about this project! She asked me a bunch of questions about them, because her specialty is customizing. So I said, “they own a restaurant and they’re really good people,  just like you guys.” I was trying to throw them off by saying random things like, “they just got engaged” and “their

restaurant is in New York City”! Her biggest concern was me traveling with her work of art and somehow messing it up, but I promised her that I didn’t have far to go. So when I get to their restaurant to pick it up, I was so amazed at how beautiful it was. Now I’m starting to get nervous, thinking, these people are going to kill me, when I finally tell them who they’re for! So I say to them, “remember when I told you these flowers are for really good people? And remember when I told you that I don’t have far to go to deliver them?” She had this scared look on her face and said, “yes?” I hand them a card, with their names on it, along with the money they charged for my floral art work for “my friends” and I said, “congratulations on moving into your new place!” At first it seemed like she was going to flip out, but as it turns out they actually spoke about the possibility that I was going to do that the night before!
~~Love Story~~
Share:

গার্লফ্রেন্ড মাত্র অনলাইনে আসল। সাথে-সাথেই মেসেজ দিলাম...গল্প

গার্লফ্রেন্ড মাত্র অনলাইনে আসল। সাথে-সাথেই মেসেজ দিলাম...

 গার্লফ্রেন্ড মাত্র অনলাইনে আসল। সাথে-সাথেই মেসেজ দিলাম...

গার্লফ্রেন্ড মাত্র অনলাইনে আসল। সাথে-সাথেই মেসেজ দিলাম...


-কই ছিলা এতক্ষণ?
-রুমেই..
-তাহলে, Phone দিলাম...ধরলা না যে?
-শুয়ে ছিলাম।
-ওহ্..আজকে তো ফ্রাইডে, আমাদের না বিকেলে বের হওয়ার কথা?
-ওহ্..
-ওহ্ কী! বের হবা না?
-হচ্ছি, রেডি হই।
-আচ্ছা..
এই ফাঁকে আমিও একটু রেডি হয়ে নিলাম। ফ্রেশ হলাম, চুলগুলা স্পাইক করলাম, রুমমেট নাই তাই এই সুযোগে তার বডি স্প্রেটাও একটু গায়ে মেরে নিলাম।
নোটিফিকেশন লাইট জ্বলছে। গার্লফ্রেন্ড Message  দিয়েছে...
-আচ্ছা শুনো..আজকে আর বের না হই।
-বের হবা না?
-না..
-কোনো প্রবলেম?
-না..
-ওহ্...আচ্ছা।
Message  ওহ্ আচ্ছা লিখেছি ঠিকই; কিন্তু আমার মন তো আর মানে না। গুগল করে একটা মন খারাপের স্ট্যাটাস কপি করে ফেসবুকে Post করলাম। তারপর কানে ইয়ারফোন গুজে একটা মন খারাপের গান শুনতে লাগলাম।
ফ্রেন্ডগুলা আমার মন খারাপের পোষ্টে হাহা দিতেছে আর উল্টাপাল্টা কমেন্ট করতেছে। আমি সেদিকে পাত্তা দিলাম না।
আমার ইগোওয়ালা Girlfriend  কোনো সময় আমারে বুঝবেও না, আর আমরে আগে আগে কোনো সময় মেসেজও দিবে না। তাই বাধ্য হয়ে আমিই দিলাম...
-চলো না বের হই...
-না বাবু, থাক আজকে।
-আরে চলো, একসাথে হাঁটব, ফুচকা খাবো, মজা হবে অনেক।
-ইমরান, তুমি কী আমারে নাইন-টেন এর বাচ্চা মেয়ে পাইছ, যে আমারে ফুচকা-চটপটির লোভ দেখাও?
-তা আবার কখন বললাম!
-থাক হইছে, আর মন খারাপ করতে হবে না। আমি বের হচ্ছি।
-সিরিয়াসলি?
-হুম...
আমি আবার লুঙ্গি খোলে প্যান্ট পরলাম। বসে বসে কষ্টের স্ট্যাটাসটাতে ফ্রেন্ডদের কমেন্টগুলায় অ্যাংরি রিয়েক্ট দিতেছি, তখুনি গার্লফ্রেন্ড আবার Message  দিল..
-বের হবো না আজকে। আর শুনো আমি একটু ঘুমাব, ঘন্টা খানেক আমারে ফোন-টোন দিও না।
আমি মেসেজের কিছু একটা Reply  দিতে যাব তখুনি দেখি সে অফলাইনে চলে গেছে। মনে মনে দু'চারটা গালাগাল দিয়ে আমি আবার নোটিফিকেশন Check  করতে শুরু করে দিলাম। দেখি গার্লফ্রেন্ডও আমার পোষ্টে হাহা দিয়ে গেছে। মনডায় চায়...টুট টুট টুট।
কষ্টের স্ট্যাটাসটা ডিলিট করে দিলাম। ফোন স্ক্রল করতেছি। মিনিট কয়েক পরে দেখি আমার গার্লফ্রেন্ড আবার অনলাইনে। আমি আবারও তারে মেসেজ দিলাম..
-অনলাইনে যে, তুমি না ঘুমাও?
-হুম, কিন্তু ঘুম আসছে না।
-ওহ্..চলো না বের হই। বাইরে বের হলে তোমার মন এমনিতেই ভালো হয়ে যাবে।
-উঁহু..
-আরো চলো তো...চলো আজকে তোমারে আমি কাচ্চি খাওয়াব।
-আরেকদিন খাওয়াইয়ো।
-ওফ্ফ..আজকের দিনটা কী আরেক দিন ফেরত পাওয়া যাবে?
-আমরা আরেকটা দিনকে আজকের দিন বানিয়ে নিবো, তাহলেই হবে।
-হবে না, চলো...
-হবে, হবে...
-আচ্ছা চলো, আমি তোমাকে আজকে একটা ড্রেস কিনে দিব।
-সিরিয়াসলি বাবু?
-হুম..বললাম তো।
-ওকে, আমি রেডি হচ্ছি..
-তাড়াতাড়ি করো, সন্ধ্যা হয়ে গেল কিন্তু।
-হচ্ছি, হচ্ছি...
আমি তাড়াতাড়ি নিচে নেমে অবকাশের দোকান থেকে Cash Out করছি, তখুনি আবার সে মেসেজ দিল...
-থাক আজকে...
-মানেডা কী!
-Dress  আরেক দিন কিনে দিও।
-তোমার হইছেডা কী বলো তো, তখন থেকে এমন করতেছ ক্যান?
-কিছু না..
-কিছু তো একটা হইছে, বলো আমারে।
-আরে বললাম তো কিচ্ছু না, এমনি।
-উঁহু...কী হইছে বলো। এমন মুড সুইং করতেছে ক্যান তোমার, পিরিয়ড?
-আরেহ্ না..
-আরে বাবা..পিরিয়ড হইলে আমারে বললে কী প্রবলেম, কী হইছে বলো?
- বা** হইছে। মুড সুইং করলেই পিরিয়ড, না!
-তো, কী হইছে বলবা?
-পেট খারাপ হইছে..
~মুড সুইং
© Rajib Debnath
Share:

Search This Blog

Labels

Recent Posts

Label