নতুন নতুন ভালোবাসার গল্প ও কবিতা পেতে আমাদের পাশেই থাকুন।

ভাইয়ের গার্লফ্রেন্ড Bro Vai ar Girlfriend

ভাইয়ের গার্লফ্রেন্ড

দুপুর বেলায় Mobile টা  টেবিলের উপর রেখে আমি টিভি দেখতে ছিলাম ।কিছুক্ষণ পরেই ছোট বোন এসে টেবিলের উপর থেকে Mobile টা নিয়ে যায় । আমার Mobile  দিয়েই ছোট বোন আর ছোট ভাই ওরা অনেক সময় গেমস খেলে Movie বা নাটক দেখে। আমি তাই কখনোই Mobile লক করে রাখি না । তার চেয়ে বড় কথা হয়েছে কখনো লক করে রাখার প্রয়োজন বোধ হয় না ‌ কারন আমার Mobile এ  এমন কিছু থাকে না যা পরিবারের কেউ দেখলে সমস্যা হবে ।

কিছুক্ষণ পরেই ছোট বোন চিৎকার দিয়ে মাকে ডাকলো , ডেকে বলতেছে মা আপনার বড় ছেলের কান্ড দেখে যান । তার চিৎকার শুনে ঘরের সব সদস্য এসে হাজির । ছোট বোন আমাকে Mobile দেখিয়ে ছোট বোন বলছে , এসব কি ভাইয়া ।
আমি মোবাইলের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে দেখি ।

কে যেন আমাকে Sms এ লিখছে , কেমন আছো বাবু , তোমাকে অনেক মিস করতেছি , তোমার সাথে দেখা করতে ইচ্ছে করছে , তিন দিন হয়ে গেছে তোমার সাথে দেখা হয়নি , আমার কিছু ভালো লাগছেনা বাবু ।

আমি Message  গুলো দেখে পুরাই টাস্কি খেয়ে বসে আছি । এসব কি , আমি জীবনে কোন মেয়ের সাথে প্রেম করতে পারলাম না। কিন্তু এখন যখন একটা মেয়ের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে ঠিক হয়েছে । ঈদের কয়েকদিন পরেই তার সাথে Amar বিয়ে হওয়ার কথা । এর মধ্যে এ আবার কোন মেয়ে আমাকে এসব লিখছে ।

Ami পরিবারের সবাইকে বোঝাতে লাগলাম যে আমি এই মেয়েটার সম্পর্কে কিছু জানি না , বলতেও পারব না । কিন্তু কে শুনে কার কথা কেউ আমাকে বিশ্বাস করলো না ।



কিছুক্ষণ পর সেই Number  থেকে আবার একটা sms আসে । তাতে লেখা , আচ্ছা বাবু Tomar পরিবার যদি আমাকে পছন্দ না করে তুমি বলছিলে তাদের বিরুদ্ধে গিয়ে তুমি আমাকে বিয়ে করবে । আচ্ছা যদি সত্যি সত্যি তোমার পরিবারের Amader সম্পর্ক মেনে না নেয় তাহলে কি সত্যিই আমাকে নিয়ে পালিয়ে যাবে ।

এই Message টা দেখার পর মনে হয় ঘরের মধ্যে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে । ছোট বোন বলতেছে ভাইয়া আপনার কাছ থেকে এসব আশা করিনি । আমাদের কত স্বপ্ন আছে Amader বড় ভাইয়ের বিয়েতে আমরা অনেক আনন্দ ফুর্তি করব । আর আপনি কিনা পালিয়ে বিয়ে করে আমাদের সব স্বপ্ন মাটি করে দিতে চান ।

Maa রেগে গিয়ে বলল , তোকে আমি কতবার জিজ্ঞেস করছিলাম, কোন মেয়ের সাথে তোর Relation  আছে কিনা থাকলে আমাদেরকে বল। তুই বলছিলি তোর রিলেশন নাই , এখন যখন তোরে বিয়ের কথা বার্তা Final  হয়েছে আর এসব কি দেখতেছি । তোর থেকে এটা আমি আশা করিনি জাবেদ ।
Baba তো রেগে আগুন, তোর জন্য আমাদের সব মান সম্মান মাটিতে মিশে যাবে । ঈদের পরে তোর বিয়ে , এখন যদি সুমির বাড়ির লোকেরা এ সব জানতে পারে ‌। তাহলে কি অবস্থা হবে তুই একবার ভেবে দেখছিস ।( সুমি হচ্ছে যার সাথে Amar বিয়ে ঠিক হয়েছে )

আমার ছোট ভাই মমিন বললো , বড় ভাইয়ের কাছ থেকে তো ছোট ভাইয়েরা অনেক কিছু শিখে । আপনি যদি এখন এই অবস্থা করেন তাহলে আমরা বড় হলে আমরা কি করব ।

তখনই Amar মেজো ভাই জাহেদ বাইরে থেকে এলো , এসে যখন দেখল সবাই আমাকে ঘিরে আছে তখন সে জানতে চাইল কি হয়েছে । সবাই যখন বলল আমি কোন মেয়ের সাথে Relation  এ আছি ।কথাটা শুনে জাহেদ আমার পাশে এসে বসে বললো – ভাইয়া মেয়েটা কোথায় থাকে, নাম কি, দেখতে কেমন, আমাদেরকে তো কখনোই বললেন না ভাবীর কথা ।

মানে কাটা শরীরে লবণ ছিটা দেওয়া । আমার তখন করুন অবস্থা আমি কাঁদো কাঁদো কণ্ঠে সবাইকে অনেক করে বোঝাতে চাইলাম । আমি সত্যিই কোন প্রেম করিনা কোন Relation  আমার নেই । কিন্তু তারা কেউ Amar কথা বিশ্বাস করল না ।
কিছুক্ষণ পরে সেই Number থেকে আবার sms । তখনো মোবাইল আমি আমার হাতে পায়নি ।ছোট বোনের হাতে মোবাইল ছিল সে সবাইকে পড়ে শোনাচ্ছিল Sms ।

সে লিখলো – আচ্ছা বাবু তুমি কোন রিপ্লাই দিচ্ছ না কেন , আর তোমার আগের Sim টা বন্ধ কেন কি হয়েছে ।
ছোট বোন বলে, দেখছেন ভাইয়া কত চালাক গার্লফ্রেন্ডের সাথে কথাবার্তা বলার জন্য আলাদা Sim নিয়ে রেখেছে । যাতে করে আমরা বলতে না পারি , দাঁড়ান দেখাচ্ছি মজা ।

তারপর আমার ছোট বোন রিপ্লাই দিলো , আমিও তোমাকে অনেক miss করছি জান আমারও ইচ্ছে করছে তোমার সাথে দেখা করতে, চলো আজকে বিকেলে আমরা দেখা করি ।

কিছুক্ষণ পরেই আবার sms আসলো – ছোট বোন sms পড়ে সবাইকে শুনাচ্ছে ।তাতে লেখা – ওকে ঠিক আছে বাবু তাহলে আমরা আজকে বিকালে দেখা করতেছি । সব সময় যেখানে দেখা করি আজকে সেখানে আসবে । আর শোনো বাবু তুমি যে আমাকে একটা শাড়ি কিনে দিয়েছিলে আমি সেই শাড়ি পরে আসবো ।আর আমি যে তোমাকে দুটো পাঞ্জাবি Gift দিয়েছিলাম, সেখান থেকে তুমি একটা পাঞ্জাবী পড়ে আসবে ।



এ কথা শোনার পর থেকেই পরিবারের সবাই একে আরেক জনের মুখের দিকে তাকাতে লাগল । কারণ আমার জীবনে আমি কখনো পাঞ্জাবি পড়িনি , আমার কোন পাঞ্জাবি ও নাই । কিছুক্ষণ পরে সবার নজর গেল আমার মেজো ভাই জাহেদের দিকে , কারণ তিন দিন আগে সে দুইটা পাঞ্জাবি নিয়ে এসেছিলো , সে বলছিল সে মার্কেট থেকে কিনে এনেছে ।
সাথে সাথে কি দেখলাম জাহেদ আমার পাশ থেকে উঠে দিল এক দৌড় , দৌড়ে সেখান থেকে পালালো ।

পরে জানতে পারলাম আসল ঘটনা , ওই মেয়েটা হচ্ছে আমার মেজ ভাই জাহেদের Girlfriend  । সকালেই হাত থেকে পড়ে তার Mobile টা নষ্ট হয়ে গিয়েছিল । তাই সে সকালে আমার Mobile  দিয়ে তার প্রেমিকার সাথে কথা বলছিলো । আর সেখান থেকেই এত কিছু ।

রাত আটটা বাজে জাহেদ বাসায় আসলে , তাকে ঘিরে বসে পরিবারের Sobai । দুপুরে আমার যে অবস্থা হয়েছিল , সেই একই করুন অবস্থার মধ্যে এখন জাহেদ আছে ।

   আপনি কি আমাদের ওয়েব সাইটে গল্প লিখতে চান তাহলে যোগাযোগ করুন 01946326870
Share:

No comments:

Post a Comment

Search This Blog

Labels

Recent Posts

Label