নতুন নতুন ভালোবাসার গল্প ও কবিতা পেতে আমাদের পাশেই থাকুন।

খুব কম সময়ে মেয়েদের মন জয় করার টিপস

 খুব কম সময়ে মেয়েদের মন জয় করার টিপস
খুব কম সময়ে মেয়েদের মন জয় করার টিপস

                               ১.আপনি যে মেয়েকেই পছন্দ করেন না কেন কখনোই আপনার মনের কথাগুলো হঠাত করে বলতে যাবেন না। এতে করে মেয়েটির আপনার প্রতি বিরূপ মনোভাব সৃস্টি হবে এবং অবহেলা চলে আসবে।

                              ২.সাধারণত মেয়েদের সবসময় বিপরীত মুখী আকর্ষণ বেশি।তাই আপনি মেয়েটিকে যত বেশি এড়িয়ে চলবেন মেয়েটি তত বেশি আপনার প্রতি আকর্ষণ বোধ করবে।


                               ৩.কখনই মেয়েটির নামে খারাপ মন্তব্য করবেন না , এমনকি বন্ধুদের সাথেও না। যদি কখনো সে জানতে পারে আপনি তার সম্পর্কে দুর্নাম রটাচ্ছেন তাহলে সে কখনই আপনাকে পছন্দ করবেনা।

                               ৪.সবসময় মেয়েটির প্রশংসা করতে শিখুন ,তাতে একদিন না একদিন তার মন গলে যাবে এবং তার মন পেতেও সহজ হবে ।

                               ৫.মেয়েটিকে ছলেবলে কৌশলে বুঝানোর চেষ্টা করুন যে আপনি তাকে পছন্দ করেন এবং তাকে ভালবাসেন। সে কি কি পছন্দ করে এবং কি অপছন্দ সেই দিক গুলো ভালভাবে জেনে নেওয়ার চেষ্টা করুন ।

                               ৬.মেয়েটি যে বিষয় গুলো বেশি পছন্দ করে সেইসব কাজ গুলো বারে বারে করার চেষ্টা করুন।এতে করে সে আপনার প্রতি কিছুটা হলেও দুর্বল হয়ে পরবে।


                               ৭. নিজের প্রতি একটু বেশি যত্নশীল হোন,সবসময় মনে রাখবেন এলোমেলো নোংরা চুল, নোংরা হাতের নখ, দুর্গন্ধযুক্ত পায়ের মোজা, কালি ছাড়া জুতা, শার্ট কিংবা জিন্সে পেন্ট এ দাগ আছে এমন পোশাক পরিধান করবেন না। কারণ বলা যায় না কোন বিষয় গুলো অপছন্দের কারণ হয়ে দাড়ায়।
                               ৮.খুব দামী দামী কাপড় পরে যে তার সামনে যেতে হবে এমন কোনো কথা নেই। তবে, পোশাকটি অবশ্যই পরিছন্ন ও ফ্যাশনেবল এবং আধুনিক হতে হবে। সেই সাথে লক্ষ রাখবেন , সেই পোশাকে যেন সাবলিল থাক যায় ।যাতে করে মেয়েটির সামনে আপনার ব্যক্তিত্বের প্রকাশ ঘটে।
                               ৯.কিছু ছোট খাটো বিষয় আছে যেগুলো একটু খেয়াল করে চলতে হবে। পরুষদের দায়িত্ব হচ্ছে নারীদেরকে নিরাপত্তা নিষ্চিত করা। তাকে একা পেছনে ফেলে কখনই নিজে এগিয়ে যাবেন না। বেড়াতে যাওয়া অথবা খাবার সময় এমন কিছু বিষয় আছে যেখানে তার পছন্দের প্রতি মুল্য ও সন্মান প্রদর্শন করা এবং তার কথার গুরুত্ব দেয়া। মনে রাখবেন সব নারীরাই গুরুত্ব পেতে ভালোবাসে। তারা সবসময় পুরুষদেরকে নিজের সর্বোত্তম আশ্রয়দাতা ও প্রাপ্তি নিশ্চিত করার সীমান মনে করে।

                               ১০.তার দেওয়া সকল উপহার সানন্দে গ্রহণ করবেন।সবসময় তার রান্নার প্রশংসা করবেন। যদি তার রান্না পছন্দ নাও হয় তাহলে কখনই বিরক্তি প্রকাশ করবেন না। মনে রাখবেন সে অনেক আন্তরিকতা ও কষ্ট করে শুধু আপনাকে খুশি করার জন্যই এসব করেছে ।

                               ১১. শান্ত স্বভাবের অনেক পুরুষ আছে যারা খুব অল্প কিছুতেই ক্ষিপ্ত হয়ে যায় কিন্তু আবার খুব সহজেই কমে যায়। আপনার কাজ হবে, কিছু সময় শান্ত থেকে পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনা এবং শান্তি বজায় রাখা।

                               ১২.আপনাকে একটু সময়ানুবর্তী হতে হবে। সময় করে সব কাজ গুলো করতে হবে।

                               ১৩.আপনি যতটুকু পারেন তার চোখে চোখ রেখে কথা বলার চেষ্টা করুন, তাহলে কিছুক্ষণের জন্য হলেও আপনি তার সমস্ত মনযোগের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠতে পারেন।


                               ১৪. মেয়েরা হ্যাপি নিউ য়িয়ার ,বার্থডে,ভালবাসা দিবস ইত্যাদি দিনে একটু বেশি আবেগ প্রবন থাকে তাই এই দিনগুলিতে যদি একটা গিফট আপনার প্রিয়জনকে দিতে পারেন তাহলে আপনার প্রতি একটু দুর্বল হয়ে পরবে। কিন্তু আবেগ দেখাতে যাবেন না তাহলে ধরা খাবেন ।

                               ১৫. আপনি যে মেয়েটিকে পছন্দ করেন তার সাথে কথা বলার সময় একটু মুচকি হাসি দিন । সাধারণত মেয়েরা ছেলেদের মুচকি হাসি অনেক বেশি পছন্দ করে।

                               ১৭.কখনই মেয়েটির সাথে মিথ্যা কথা বলবেন না । মেয়েরা মিথ্যাবাদী ছেলেদেরকে মোটেও পছন্দ করে না।


                               ১৮.সাধারণত মেয়েরা আত্মবিশ্বাসী ছেলেদেরকে বেশি পছন্দ করে তাই সবসময় নিজেকে আত্মবিশ্বাসী হিসেবে গড়ে তুলুন।

                               ১৯.মেয়েটির মন ভাল রাখার জন্য আপনি বিভিন ধরনের হাসির গল্প ও জোকেস বলতে পারেন।

                               ২০.কখনই তার দূর্বল জায়গা গুলোতে আঘাত করা যাবে না। কারণ তার দুর্বল জায়গা গুলো নিয়ে কথা বললে সে আপনার উপর রেগে যাবে ।এটা মেয়েরা কখনই পছন্দ করে না।
Share:

No comments:

Post a Comment

Search This Blog

Labels

Blog Archive

Recent Posts

Label